Home

কলেজ প্রতিষ্ঠার ইতিহাস

বাংলাদেশ দারিদ্রপীড়িত এলাকা—ততোধিক দারিদ্রপীড়িত পশ্চাৎপদ এলাকা আমাদের এই উত্তরবঙ্গ। এই উত্তরবঙ্গেরই একটি ছোট্ট জেলা লালমনিরহাট। যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশে যখন সর্বজনীন শিক্ষা ব্যবস্থা মুখ থুবড়ে পড়েছিল তখন দেশের বিভিন্ন এলাকায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে অঞ্চলভিক্তিক বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠে। লালমনিরহাটেও সে সময় পঞ্চায়েত পরিবারের প্রতিনিধি শিক্ষাব্রতী মরহুম ডা. আবুল মহসিন প্রমানিক ব্যক্তিগত উদ্যোগ এবং অর্থায়নে বেশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। প্রাথমিক স্থরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি এই মহান বিদ্যোৎসাহী, কীর্তিমান, সমাজ সেবক ব্যক্তিত্ব তাঁর সমাপ্ত অনুরাগ ও কর্ম উদ্দিপনা দিয়ে বাড়ি সংলগ্ন বিরাট সবুজ চত্তরে গড়ে তোলেন লালমনিরহাট আর্দশ ডিগ্রী কলেজ। প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৪ ইং সালে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেনীতে পাঠদানের স্বীকৃতি নিয়ে যাত্রা শূরু করে এবং পরবর্তীতে ২০০১ ইং সাল থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুমতি প্রাপ্ত হয়ে স্নাতক পর্যায়ে উন্নিত হয়। প্রতিষ্ঠাকালিন সেই ছোট্ট মহাবিদ্যালয়টি আজ মহীরুহে পরিণত হয়ে লালমনিরহাট জেলার অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে নিজ স্বাতন্ত্র বজায় রেখে বিশিষ্টতা অর্জন করেছে। গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বিনামুল্যে বই, নিজস্ব অর্থয়নে বৃত্তি ও সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দিয়ে এ প্রতিষ্ঠানটি স্বমহিমায় ভাস্কর হয়ে প্রতিষ্ঠাতায় স্বপ্ন পূরনে উত্তরোত্তর শ্রীবৃদ্ধি ঘটাচ্ছে। এই স্বপ্ন দ্রষ্টা পুরুষ উপলব্ধি করেছিলেন, শিক্ষার দীনতা থাকলে বুদ্ধির মুক্তি ঘটবে না। এই আলোকিত পুরুষ প্রমান করেছেন সমাজ ও দেশের উন্নয়নের জন্য জনপ্রতিনিধি হতে হয় না, মানুষের প্রতি ভালোবাসা, সদিচ্ছা ও আন্তরিকতা থাকলে অবহেলিত মানুষের পাশে দারানো যায়। তিনি স্বপ্ন দেখতেন তাঁর এলাকার মানুষ শিক্ষিত হবে, অধিকার সচেতন হবে, বিদ্যানুরাগী হবেন- তাঁর এই স্বপ্ন কাঙ্খাকে হৃদয়ে লালন করে আমরা যেন তাঁর স্বপ্ন পূরন করতে পারি।

Lalmonirhat A D College © 2016 Frontier Theme